আজ ৩শ ৮০ মেগাওয়াট ক্ষমতার আশুগঞ্জ কম্বাইন্ড সাইকেল (সাউথ) বিদ্যুৎ কেন্দ্রের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আশুগঞ্জ সংবাদদাতা   | ০১ মার্চ ২০১৭ | সময়ঃ ৭:৪২ অপরাহ্ণ
700

বাণিজ্যিক ভিত্তিতে বিদ্যুৎ উৎপাদন শুরু পর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন হচ্ছে আশুগঞ্জ বিদ্যুৎ কেন্দ্রের ৩শ ৮০ মেগাওয়াট ক্ষমতার গ্যাস ভিত্তিক আশুগঞ্জ কম্বাইন্ড সাইকেল (সাউথ) বিদ্যুৎ কেন্দ্র। আজ বুধবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে নতুন এ বিদ্যুৎ কেন্দ্রটি আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করবেন। বিদ্যুৎ কেন্দ্রটি উদ্বোধন উপলক্ষে এখন পুরো বিদ্যুৎ কেন্দ্র এলাকা দেখা দিয়েছে সাজ সাজ রব। ইতিমধ্যে বিদ্যুৎ কেন্দ্র কর্তৃপক্ষ আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনের সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে। এর আগে গত বছরের ২২ জুলাই বাণিজ্যিক ভিত্তিতে বিদ্যুৎ উৎপাদনের অনুমতিদেয় বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড। এ কেন্দ্রটি উৎপাদনে আসায় দেশের বিদ্যুৎ ঘাটতি অনেকটাই কমবে জানিয়েছেন আশুগঞ্জ তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্র কতৃপর্ক্ষ। সরকারি-বেসরকারি ১৩টি পাওয়ার প্লান্ট রয়েছে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জে। এসব কেন্দ্র থেকে প্রতিদিন উৎপাদন হচ্ছে প্রায় ১৬শ’ ৩৪ মেঘাওয়াট বিদ্যুৎ। যা দেশের বিদ্যুৎ উৎপাদের ক্ষেত্রে সর্ববৃহৎ পাওয়ার হার হিসেবে রূপান্তরিত হয়েছে। যা দিয়ে মিটছে দেশের ১৫ শতাংশ বিদ্যুতের চাহিদা। এতে করে দেশের একক অঞ্চল হিসেবে সবচেয়ে বেশি বিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্র হিসেবে গড়ে উঠেছে আশুগঞ্জ। সরকারি পরিকল্পনায় সবার ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ পৌঁছে দেওয়ার লক্ষ্যে চলমান আশুগঞ্জ বিদ্যুৎ কেন্দ্রের অর্ধীনে নির্মানাধীন রয়েছে আরো বেশ কয়েকটি বিদ্যুৎ কেন্দ্রের উন্নয়ন কাজ। নতুন এ বিদ্যুৎ কেন্দ্রটির উৎপাদন পুরোদমে শুরু হলে প্রায় ২হাজার মেঘাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন হবে আশুগঞ্জ থেকে। জানা গেছে, প্রায় ৩হাজার ৭শ ২০কোটি টাকা ব্যয়ে সাড়ে ১০ একর জায়গার উপর শহরের ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের পার্শ্বে আশুগঞ্জ তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রের নিজস্ব উদ্যোগে নির্মিত পরিবেশ বান্ধব জ্বালানী স্বাশ্রয়ী ৩৮০ মেগাওয়াট ক্ষমতার আশুগঞ্জ কম্বাইন্ড সাইকেল পাওয়ার প্লান্ট (সাউথ) প্রকল্পটির কাজ শুরু হয় ২০১৩ সালের মার্চ মাসে। দেশের ইতিহাসে এ বিদ্যুৎ কেন্দ্রটি ৫৬% সর্বোচ্চ জ্বালানি দক্ষতা সম্পন্ন। বিদ্যুৎ কেন্দ্রটি চালু রাখতে প্রতিদিন ৫৫এমএম সিএফডি গ্যাস প্রয়োজন হবে। যা অন্যান্য বিদ্যুৎ কেন্দ্রের চেয়ে অনেক কম। এর ফলে এ কেন্দ্রটি থেকে নির্গত কার্বনডাই অক্সসাইডের মাত্রা অনেক কম থাকায় পরিবেশেরও ক্ষতি হবে কম। আশুগঞ্জ বিদ্যুৎ কেন্দ্রের নিজস্ব তহবিল, ইসিএ ব্যাকড প্রজেক্ট ফাইনান্সের অর্থায়নে এ প্রকল্প নির্মাণ করা হচ্ছে। বিদ্যুৎ কেন্দ্রটির নির্মানের দায়িত্ব পান ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান স্প্যানের কোম্পানী টিএসকে ইলেক্ট্রা লিঃ। বিদ্যুৎ কেন্দ্রটি স্টিম টারবাইন ও গ্যাস টারবাইন মিলে কম্বাইন্ড সাইকেল ইউনিট। এর মধ্যে স্টিম টারবাইন ১৩৬ মেগাওয়াট ক্ষমতার ও গ্যাস টারবাইন ২৫০ মেগাওয়াট ক্ষমতার ইউনিট। ইতিমধ্যে বিদ্যুৎ কেন্দ্রটি থেকে বানিজ্যিক ভিত্তিতে গতবছরের ২২ জুলাই থেকে পুরো মাত্রায় ৩শ ৮৬ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ জাতীয় গ্রীডে যোগ হচ্ছে। কেন্দ্রটি থেকে তাপ মাত্রার উপর নির্ভর করে শীতকালে উৎপাদন হবে ৪শ ২৬ মেগাওয়াট ও গ্রীস্মকালে উৎপাদন হবে ৩শ ৮৬ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন করবে। আশুগঞ্জ সিসিপিপি (সাউথ) বিদ্যুৎ কেন্দ্রের প্রকল্প পরিচালক প্রকৌশলী আব্দুস সামাদ জানান, আগামী ১ মার্চ বুধবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে নতুন এ বিদ্যুৎ কেন্দ্রটির আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করবেন। বিদ্যুৎ কেন্দ্রটি উদ্বোধন উপলক্ষে এখন পুরো বিদ্যুৎ কেন্দ্র এলাকা দেখা দিয়েছে সাজ সাজ রব। ইতিমধ্যে বিদ্যুৎ কেন্দ্র কর্তৃপক্ষ আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনের সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে।

এখানে আপনার মন্তব্য করতে পারেন

টি মন্তব্য

পড়া হয়েছে 124 বার

এই বিভাগের আরও খবর

    আর্কাইভ

    প্রজাবন্ধু ফেসবুক ফ্যান পেজ