শাবলের আঘাতে স্ত্রীকে খুন! স্বামী গ্রেফতার   | ২৭ সেপ্টেম্বর ২০১৭ | সময়ঃ ৮:০৮ অপরাহ্ণ

তিনি নয় সন্তানের জনক। এর মধ্যে পাঁচজন ছেলে ও চারজন মেয়ে। তবুও পরকীয়া প্রেম! এটা যেন তিনি ছাড়তেই পারছিলেন না। এ নিয়ে ছিলো দাম্পত্য কলহ। স্বামী-স্ত্রীকে ঝগড়াতো মামুলি ব্যাপার। ৫০ বছর বয়েসী মতিউর রহমান ওরফে মুতি মিয়ার পরকীয়া প্রেমের কথা তার ছেলে-মেয়ে, পাড়া-পড়শী সকলেই অবহিত। এমনকি হয়েছে কয়েক দফা সালিশ-দরবারও। কাজ হয়নি কিছুতেই। শোধরান নি তিনি। যেন হয়েছেন আরো বেপরোয়া! এসবের জেরেই শেষতক শাবলের আঘাতে খুন করলেন স্ত্রী রাজিয়া খাতুনকে (৪০)। অবশ্য স্ত্রী হত্যার দায়ে হয়েছেন তিনি গ্রেফতার। থানায় রজু হয়েছে হত্যা মামলা। চাঞ্চল্য সৃষ্টিকারী ও পৈশাচিকতাময় ঘটনাটি ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলাধীন নাসিরনগর উপজেলার এক নিভৃত পল্লীর।
সোমবার রাত ১০টার দিকে উপজেলার গুনিয়াউক ইউনিয়নের গুটমা গ্রামে ঘটে এই পৈশাচিকতাপূর্ণ ঘটনা।
নিহতের পরিবার, এলাকাবাসী ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, র্প্বূভাগ ইউনিয়নের পূর্বভাগ গ্রামের মৃত মতিউর রহমানের মেয়ে রাজিয়া খাতুন। প্রায় ৩০ বছর আগে তার সাথে গুনিয়াউক ইউনিয়নের গুটমা গ্রামের  মুস্তব আলীর ছেলে মতিউর রহমান ওরফে মুতি মিয়ার বিয়ে হয়। দাম্পত্য জীবনে তারা নয় সন্তানের জনক-জননী। তা সত্ত্বেও রাজিয়ার স্বামী  মুতি মিয়া পরকীয়া প্রেমে আসক্ত ছিলো। স্বামীর পরকিয়ায় বাধা দিলে মুতি মিয়া প্রায়শই তার স্ত্রীকে মারপিট করাসহ মানসিক নির্যাতন করতো। এই নিয়ে বেশ কয়েকবার সালিশ-দরবারও হয়েছে। তাতেও কোনো কাজ হয়নি। বরং আরো বেপরোয়া হয়ে ওঠে মুতি মিয়া। সোমবার রাতেও তাদের মধ্যে ঝগড়া হয়। পরে নামাজ পড়তে যায় গৃহবধূ রাজিয়া। এসময় মুতি মিয়া লোহার শাবল দিয়ে নামাজরত অবস্থায় রাজিয়াকে ঘাই মারলে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। ঘটনার খবর পেয়ে নাসিরনগর থানা পুলিশের ঘটনাস্থলে পৌঁছে নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য জেলা সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠায়। এসময় স্ত্রীঘাতক মতিউর রহমান মুতি মিয়াকে গ্রেফতার করে। এই ঘটনায় নিহতের ছোটভাই ছোয়াব মিয়া বাদী হয়ে ঘাতক মতিউর রহমান ওরফে মুতি মিয়াসহ আটজনের নামোল্লেখ করে এবং অজ্ঞাতনামা আরো কয়েকজনকে আসামী করে নাসিরনগর থানায় একটি হত্যা মামলা রজু করেন।
নাসিরনগর থানার পরিদর্শক (ওসি) মো. আবু জাফর ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন,‘স্ত্রী হত্যার দায়ে রাজিয়ার স্বামী মতিউর রহমান ওরফে মুতি মিয়াকে গ্রেফতার করা হয়েছে। নিহতের ভা ইবাদী হয়ে হত্যা মামলা দায়ের করেছেন।’

এখানে আপনার মন্তব্য করতে পারেন

টি মন্তব্য

পড়া হয়েছে 18 বার

এই বিভাগের আরও খবর

    আর্কাইভ

    প্রজাবন্ধু ফেসবুক ফ্যান পেজ